সতেরো বছর বয়সে লেখক ‘শিশুর প্রতি ভালোবাসা’ বই মেলায় - হাতেখড়ি

সতেরো বছর বয়সে লেখক ‘শিশুর প্রতি ভালোবাসা’ বই মেলায়

সবু হোসেন কামাল :

বয়স মাত্র সতেরো । এই বয়সেই দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন শিশু সাংবাদিক ও লেখক মোশারফ হোসেন। শিশুদের নিয়ে লেখা তার প্রথম বই ‘শিশুর প্রতি ভালোবাসা’ অমর একুশে বই মেলার ২৫৬ নম্বর বর্ণ প্রকাশের স্টলে পাওয়া যাচ্ছে । তিনি জানান, বইটি শিশু কিশোর ও সকল বয়সী অভিভাবকের পড়ার উপযোগী । বইটিতে রয়েছে শিশুদের প্রতি আরও ভালোবাসা ও দায়িত্ববোধ তৈরি করতে বিশেষ ব্যক্তির জীবনী। এবং বর্তমান সময়ে শিশু সমস্যা সমাধানের উপায়। কিভাবে সমস্যায় পড়ে আর এই সমস্যা থেকে বেড় হয়ে আসবে কীভাবে এর উপায়সহ বিভিন্ন শিক্ষা ও সচেতন মূলক ছোট গল্প ও ফিচার রয়েছে। বইটির প্রকাশক ও বর্ণ প্রকাশের প্রধান সাইদুর রহমান বলেন, বইটি শিশুদের প্রতি ভালোবাসা জাগাতে দৃষ্টান্ত ভূমিকা রাখবে।

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার আজিজুল হক ও মোর্শেদা বেগম এর ছোটছেলে মোশারফ হোসাইন (১৭)। তার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, লেখালেখির সখ ছিলো ছোট থেকেই। এখনো আছে। আশা করছি আগামী দিনেও থাকবে। তবে অন্যদের চেয়ে একটু আলাদা। গত ৪ বছর আগে শুরু করেছিলাম শিশুদের শিক্ষা, বিনোদন, সচেতনতা ও অধিকার নিয়ে । লেখালেখির শুরু ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ দিয়ে। তারপর উপজেলা ভিত্তিক অনলাইন ও পরে জেলা ভিত্তিক অনলাইন। সবশেষে বিভাগীয় ভিত্তিক কাগজপত্রে। আর এখন দেশের জাতীয় কাগজপত্রে লেখছি। শিশু সাংবাদিকতা শুরু ২০১৫ সালে। শিশুদের শিক্ষা, সচেতনতা, বিনোদন ও অধিকার নিয়ে লিখতে গিয়ে শিকার হয়েছি লাঞ্চনা বঞ্চনার। এলাকার বড় ভাইদের কাছে হয়েছি হাসির পাত্র তবুও থামেনি আমার পথ চলা। স্থানীয় সাংবাদিক আর কিছু বড় ভাইদের সহযোগিতায় আজ আমি একটুরো শিকড় থেকে একটুকরো শিখড়ে। আর এজন্যই একটুকরো সাফল্যস্বরূপ অমর একুশে বই মেলায় শিশুদের নিয়ে আমার এই বই ।

তার খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তিনি ১৭ বছর কিশোর জীবনে কাজ করেছেন অনলাইন প্রিন্ট মিলে ১৭টিরও বেশী গণমাধ্যমে। তিনি আরও বলেন, এখনো শিশুদের জন্যই লেখি। আর। পরীক্ষার পর ভালো কোন টিভি চ্যানেলে সুযোগ পেলে ঝাঁপিয়ে পড়বো শিশুদের সমস্যা তুলে আনার কাজে।

বর্তমান সময়ে তিনি দৈনিক সমকাল, দেনিক ভোরের পাতা ও জনপ্রিয় অনলাইন পোর্টাল হাতেখড়িতে বিশেষ প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করছেন। বর্তমানে তিনি থাকেন, রাজধানী ঢাকার মোহাম্মদপুরে এবং এবছরই মোহাম্মাদপুর কাদেরিয়া তৈয়্যেবিয়া আলিয়া (কামিল) মাদ্রাসা থেকে আলিম (এইসএসসি) পরীক্ষায় অংশ নিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *