বাঁচতে চায় ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত সৈয়দপুরের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্র সোহান - হাতেখড়ি

বাঁচতে চায় ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত সৈয়দপুরের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্র সোহান

 ওয়াসিব ইসলাম আসিফ,নীলফামারী প্রতিনিধি:

সপ্তম শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র সাব্বির আহমেদ সোহান, বয়স ১৩ থেকে ১৪ ছুই ছুই। এই বয়সে তার মনে রয়েছে সাফল্যের তারাকে হাত দিয়ে ধরা। তাই মন প্রান দিয়ে পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছে সে। কারন তাকে যে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে হবে, ভালো লেখাপড়া করে বড় কিছু অর্জন করে দেশের জন্য কিছু করতে পারাটাই যেন সোহানের স্বপ্ন। সাফল্যের পথে এগিয়ে সবসময় নিজের সেরাটাই দিয়ে লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছে সোহান।

নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার ৮নং ওয়ার্ড বাঙ্গালীপুর নীজপাড়া সর্দারপাড়া এলাকার মো.জাহাঙ্গীর রহমানের ছেলে সৈয়দপুর লায়ন্স স্কুল এ্যান্ড কলেজের ৭ম শ্রেনির মেধাবী ছাত্র সাব্বির আহমেদ সোহান(১৪)।

সোহানের বাবা মোঃ জাহাঙ্গীর রহমান সৈয়দপুর শহরের সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসে পত্র বাহকের কাজ করেন। বলতে গেলে মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলে সোহান। ভালো স্কুলে পড়ানোর সামর্থ না থাকলেও তার ইচ্ছেতেই সৈয়দপুরের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজে ভর্তি করে দেয় তার বাবা, যাতে সোহান ভালো পড়ালেখা করে কৃতিত্বের সাথে পড়ালেখা করতে পারে। তার পড়ালেখার আগ্রহ দেখে তার বাবা বুঝে নিয়েছিলেন যে তাদের সোহান ঠিক একদিন ভালো কিছু করবে ভালো চাকরী করে তাদের সুনাম ছড়িয়ে দেয়।

কিন্তু সোহানের স্বপ্ন যেন স্বপ্নই থেকে যাবে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারী সোহান হঠাৎ অসুস্থ হয়ে ক্লাস রুমে পরে যায়। তাৎক্ষনিক সোহানের সহপাঠী এবং শিক্ষকদের সাহায্যে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যায়। ডাক্তার সব পরিক্ষা নিরিক্ষা করে জানান যে সোহান রক্ত শুন্যতায় ভুগতেছে। তাৎক্ষনিকভাবে সোহানকে রংপুর মেডিকেল কলেজে ভর্তি করানো হয়। সেখানে সোহানের শরীরে ৪ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়। পরবর্তীকালে ডাক্তার বিভিন্ন পরিক্ষা-নিরিক্ষা করে জানায় সোহানের ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে।

সোহান মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান, তার বাবার সামর্থ নেই সোহানের চিকাৎসা করানোর। তাই সাহায্য চেয়েছে সৈয়দপুরবাসীর কাছ থেকে, কাগজে তার অবস্থার কথা লিখে কাগজ বিলিয়ে মানুষের কাছে সাহায্য চেয়েছে তার বাবা।

কাগজে তার অবস্থার বিবরনীর সাথে নিচে লেখা ছিলো। আমাকে বাঁচান,আমি বাঁচতে চাই,আমি আবার লেখাপড়া করতে চাই, আপনার দেয়া সাহায্য দোয়া আমাকে বাঁচাতে পারে। দয়াকরে আমাকে বাঁচান আপনাদের সাহায্যের দুটি হাত বাড়িয়ে দিন। এমনটাই লেখা ছিলো সেই কাগজে। সোহান অসহায় হয়ে মানুষের কাছে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিছে। আমরা কি পারিনা সোহানকে সবাই মিলে সাহায্য করে তার চিকিৎসা করে তাকে সুস্থ করে তুলি যাতে সে আবার পুনরায় স্কুলে যেতে পারে এবং তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারে।

আসুন সবাই মিলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই অসহায় সোহানের দিকে, আমাদের কিছু কিছু করে দেওয়া সাহায্যেই বদলে দিতে পারে সৈয়দপুরের সাব্বির আহমেদ সোহানের জীবন। সাহায্য করার জন্য নিচের নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  মোবাইল  ০১৭০৫৮৭৮৩৭৭।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *