পথশিশুদের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের আট - হাতেখড়ি

পথশিশুদের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের আট

নিউজ ডেস্কঃ

মা-বাবা নেই, তাই বলে বিশ্বকাপ খেলা হবে না তাদের । সানিয়া মির্জা, জেসমিন আক্তার, স্বপ্না আক্তার, আরজু রহমান, রাসেল ইসলাম রুমেল, আবুল কাশেম, রুবেল ও নিজাম হোসেন। এই সমাজে তাদের পরিচয় পথশিশু হিসেবে। তাদের মা–বাবা নেই, পরিবার নেই। তারা এতিম।

কিন্তু আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের আগে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে স্ট্রিট চাইল্ড ক্রিকেট বিশ্বকাপ। ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসে আগামী ৩০ মে শুরু  ভিন্নধর্মী এই আয়োজন। প্রথমবারের মতো এই টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের এই  ৮ ক্রিকেটার।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ডসহ মোট ১০টি দেশের ৮০ জন ছেলে-মেয়ে অংশ নিচ্ছে এই বিশ্বকাপে। পথশিশুরাও যেন আর সব শিশুর মতোই সুযোগ-সুবিধা পায়, সে জন্য বিভিন্ন রকম উদ্যোগ নিয়ে থাকে স্ট্রিট চাইল্ড ইউনাইটেড নামের সংস্থাটি।

বিশ্বব্যাপী পথশিশুদের একত্র করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ করে দেওয়াই স্ট্রিট চাইল্ড ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপের লক্ষ্য। এসব অবহেলিত শিশুর প্রতি নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি দূর করার ক্ষেত্রে এ আয়োজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।  যুক্তরাজ্যে আয়োজিত স্ট্রিট চাইল্ড ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ থেকে আট শিশুকে নির্বাচিত করা হয়েছে। ১৪-১৭ বছর বয়সী চারটি মেয়ে ও চারটি ছেলে শিশুকে নির্বাচন করা হয়েছে।

অক্টোবরে বিসিবির অনুমতি পায়। তারপর শিশু নির্বাচন। তবে জটিলতা বাধে পাসপোর্ট নিয়ে। কারণ পাসপোর্ট করতে অভিভাবকের পরিচয় দরকার পড়ে। আদালতে যাওয়া ছাড়া উপায় থাকে না লিডোর। আদালতের অনুমতি ব্যতিরেকে লিডো শিশুদের অভিভাবক হতে পারছিল না।

এতে অনেক সময় চলে গেল। শেষে মিলেছে পাসপোর্ট। ২৭ মার্চ থেকে বিসিবির অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিভিশনাল কোচ রায়হান গাফফার সাইমনের তত্ত্বাবধানে প্রশিক্ষণও শুরু হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যেই উড়াল দেবে পথশিশুর দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *