নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে টানা তৃতীয় জয় বসুন্ধরার - হাতেখড়ি

নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে টানা তৃতীয় জয় বসুন্ধরার

মোঃ নাঈম ,নীলফামারীঃ

নীলফামারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে রহমতগঞ্জকে হারিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল বসুন্ধরা কিংস। অবশ্য এবার পেলান্টিং গোলে এই জয়ের মুখ দেখতে পায় কিংস। এনিয়ে হোম ভেনুতে অনুষ্টিত ৩টি ম্যাচেই জয় আসল বসুন্ধরা কিংসের।এর আগে প্রথম ম্যাচে আবাহানী লিমিটেডকে ৩-০ ও দ্বিতীয় ম্যাচে নোফেল ষ্পোটিং ক্লাবকে ২-০ গোলে পরাস্ত করে বসুন্ধরা কিংস।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় খেলা শুরু হয়।গোল শুন্যভাবে শেষ হয় প্রথমার্ধ । প্রথমার্ধে কোন দলেই গোলের দেখা না পেলেও দু’দলেই বেশ কয়েকটি গোল মিস করেন। ১৫ মিনিটে রহমতগঞ্জ একটি গোল করলেও অফসাইডের কারণে তা বাতিল করা হয়। খেলা শুরুর পর থেকেই দর্শকদের প্রতিদ্বন্দিতা পূর্ণ একটি ম্যাচ উপহার দেয় দু’দলেই। শুরু থেকে আক্রমন-পাল্টা আক্রমনের খেলায় গ্যালারির দর্শকদের মূহু-মূহু করতালিতে পুরো স্টেডিয়াম মাতিয়ে উঠে।

দ্বিতীয়ার্ধ খেলা শুরুর ২ মিনিটে অর্থাৎ ৪৭ মিটিটে রহমতগঞ্জ এমএফএসের নাইজেরিয়ান ফুটবলার সানডে চিজুবারের ফাউল থেকে পেলান্টি পায় বসুন্ধরা কিংস। রহমতগঞ্জের ডি বক্সের পশ্চিম কর্নারে সানডে চিজুবারের সাথে বসুন্ধরা কিংসের মিড ফরোয়ার্ড আলমগীর কবির রানার সংঘর্ষে এই পেলান্টি আদায় করেন বসুন্ধরা কিংস।এসময় রেফারি মিজানুর রহমান পেলান্টি ঘোষনা দিলে ক্ষেপে যান নাইজেরিয়ান ফুটবলার সানডে চিজুবার। তিনি প্রথমে বসুন্ধরার প্রধান কোচ অস্কার উইলিয়ান ব্রুজোন ব্যায়ারিআর্স ও পরে রেফারিকে লক্ষ্য করে চেচাঁমেচি ও উচ্চস্বরে কি যেন বলতে থাকেন। রেফারি তার সিদ্ধান্তে অটল থাকায় ২মিনিট কিরগিজ ফুটবলার বখতিয়ারের পেলান্টিং শট রহমতগঞ্জের গোল কিপার তিতুমীর চৌধুরীকে পরাস্ত করে ১ গোলে লিড পায় বসুন্ধরা কিংস।

 পরে আরো আক্রমনতক খেলতে থাকে বসুন্ধরা কিংস। ৭২ ,৭৫ ও ৮৬ মিনিটে ৩জন খেলোয়ার পরিবর্তন করে বসুন্ধরা কিংস। অবশ্য ৮৪ মিনিটে রহমতগঞ্জ একজন খেলোয়ার পরিবর্তন করেন। ৮০ মিনিটে রহমতগঞ্জ এর গোলবারের জটলা থেকে বল বের করে ইমন আহমেদ রহমতগঞ্জের জালে দ্বিতীয় বলটি প্রবেশ করান। কিন্তু রেফারির শতর্ক দৃষ্টি ফাঁকি দিতে পারেনি ইমন। আউট সাইড থেকে বল নিয়ে এসে গোল করায় তা বাতিল করেন রেফারি। খেলা শেষে সাংবাদিক সম্মেলন হওয়ার কথা থাকলেও অনিবার্য কারণ দেখিয়ে তা বাতিলের ঘোষনা দেন বসুন্ধরা কিংসের এক কর্মকর্তা।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন মুন বলেন, বিপিএল’র তৃতীয় ম্যাচটি দারুণভাবে উপভোগ করেছে এখানকার দর্শকরা। আগামী ২৪ ফেরুয়ারী শেখ কামাল স্টেডিয়ামে চতুর্থ ম্যাচ অনুষ্টিত হবে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *